Model Activity Task Class 10 January 2022 | দশম শ্রেণীর মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক জানুয়ারি ২০২২

আজকে আমরা দশম শ্রেণীর সমস্ত বিষয়ের মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক (Model Activity Task Class 10 January 2022) সমাধান নিয়ে হাজির হয়ে।


Model Activity Task Class 10 January 2022

Model Activity Task Class 10 January 2022

Model Activity Task Class 10 Bengali January 2022


১. ঠিক উত্তরটি বেছে নিয়ে লেখাে :   ১x৩=৩ 

১.১ তপনের মেসােমশাই যে পত্রিকার সম্পাদককে চিনতেন —

(ক) শুকতারা
(খ) সন্ধ্যাতারা 
(গ) বালক
(ঘ) জ্ঞানান্বেষণ 

উত্তরঃ তপনের মেসােমশাই সন্ধ্যাতারা পত্রিকার সম্পাদককে চিনতেন।

১.২ তপনের লেখা প্রথম গল্পটির নাম —

(ক) রাজা-রানির গল্প
(খ) অ্যাকসিডেন্ট 
(গ) প্রথম দিন
(ঘ) বিদ্যালয় জীবনের অভিজ্ঞতা 

উত্তরঃ তপনের লেখা প্রথম গল্পটির নাম হল প্রথম দিন

১.৩ তপনের লেখা গল্প তার মেসােমশাইয়ের কাছে পৌঁছে দিয়েছিলেন তপনের —

(ক) মা
(খ) বাবা 
(গ) মেজোকাকু
(ঘ) ছােটোমাসি 

উত্তরঃ তপনের লেখা গল্প তার মেসােমশাইয়ের কাছে পৌঁছে দিয়েছিলেন তপনের ছােটোমাসি


২. একটি বা দুটি বাক্যে উত্তর দাও :   ১x৩=৩ 

২.১ .. এমন সময় ঘটল সেই ঘটনা। – উদ্ধৃতাংশে কোন্ ঘটনার কথা বলা হয়েছে? 

উত্তরঃ আশাপূর্ণা দেবীর ‘জ্ঞানচক্ষু’ গল্পের উদ্ধৃতাংশে ‘সন্ধ্যাতারা’ পত্রিকা নিয়ে ছােটোমাসি ও মেসােমশাইয়ের তপনদের বাড়িতে আসার ঘটনার কথা বলা হয়েছে।

২.২ ‘ক্রমশ ও কথাটাও ছড়িয়ে পড়ে। – কোন্ কথাটা ছড়িয়ে পড়ে?

উত্তরঃ আশাপূর্ণা দেবীর ‘জ্ঞানচক্ষু’ গল্পে ছােটোমেসাে ‘সন্ধ্যাতারা’ পত্রিকায় তপনের লেখা “প্রথম দিন’ গল্পটি প্রকাশ করিয়ে দেওয়ার পূর্বে একটু আধটু সংশােধন করে দিয়েছেন। এই কথাটা ছড়িয়ে পড়ে।

২.৩ ‘বুকের রক্ত ছলকে ওঠে তপনের। – কখন তপনের এমন পরিস্থিতি হয়েছিল? 

উত্তরঃ  আশাপূর্ণা দেবীর ‘জ্ঞানচক্ষু’ গল্পে ছােটোমেসাের হাতে ‘সন্ধ্যাতারা’ পত্রিকা দেখে তপনের বুকের রক্ত ছলকে ওঠে।


৩. প্রসঙ্গ নির্দেশসহ কম-বেশি ৬০টি শব্দে উত্তর লেখাে :    ৩x৩=৯ 

৩.১ ‘পৃথিবীতে এমন অলৌকিক ঘটনাও ঘটে?’ – কোন্ ঘটনাকে কেন অলৌকিক বলা হয়েছে?    ১+২ 

উত্তরঃ  আশাপূর্ণা দেবীর লেখা ‘জ্ঞানচক্ষু’ গল্পে তপনের লেখা ‘প্রথম দিন’ গল্পটি ‘সন্ধ্যাতারা’ পত্রিকায় ছেপে বের হওয়ার ঘটনাকে অলৌকিক বলা হয়েছে।

তপনের লেখা গল্প ছাপা হয়ে প্রকাশিত হবে এটা ছিল তার কল্পনার অতীত। ফলে মেসাের হাতে ‘সন্ধ্যাতারা’ পত্রিকা দেখে তপনের বুকের রক্ত ছলকে ওঠে। সত্যিই তার গল্প ছাপা হয়েছে এবং সে লেখা হাজার হাজার ছেলের হাতে হাতে ঘুরবে। তাই এই ঘটনাকে অলৌকিক বলা হয়েছে ।

৩.২ ‘যদি কখনাে লেখা ছাপতে দেয় তাে, তপন নিজে গিয়ে দেবে। – কখন তপন এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছিল? কেন তার এমন সিদ্ধান্ত?     ১+২ 

উত্তরঃ আশাপূর্ণা দেবীর ‘জ্ঞানচক্ষু’ গল্পে ‘সন্ধ্যাতারা’ পত্রিকায় তপনের লেখা প্রথম দিন গল্পটি ছেপে বের হওয়ার পর সে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।

ছােটোমেসাে ‘সন্ধ্যাতারা’ পত্রিকায় তপনের লেখা প্রথম দিন’ গল্পটি প্রকাশ করিয়ে দেন। তপন তার মাকে গল্পটি পড়ে শুনাতে গিয়ে দেখে সংশােধনের নামে ছােট মেসােমশাই লেখার আগাগােড়াই বদলে দিয়েছেন। ছেপে আসা গল্পে তার কৃতিত্ব এতটুকুও অবশিষ্ট নেই। লজ্জায়, অপমানে তপন ভেঙে পড়ে এবং তার মনে হয় ঐ দিনটি যেন তার জীবনের সবচেয়ে দুঃখের। তাই তার এমন সিদ্ধান্ত।

৩.৩ গল্প ছেপে আসার পর যে আহ্লাদ হওয়ার কথা, সেই আহ্লাদ তপনের না হওয়ার কারণ কী? কেন দিনটি তার কাছে সবচেয়ে দুঃখের হয়ে উঠল?    ১+২ 

উত্তরঃ আশাপূর্ণা দেবীর ‘জ্ঞানচক্ষু’ গল্পে ছােট মেসাে ‘সন্ধ্যাতারা, পত্রিকায় তপনের লেখা প্রথম দিন’ প্রকাশ করিয়ে দেওয়ার পূর্বে সংশােধনের নামে লেখার আগাগােড়াই বদলে দিয়েছেন। ছেপে আসা গল্পে তার কৃতিত্ব এতটুকুও নেই। তাই গল্প ছেপে আসার পর যে আহ্লাদ হওয়ার কথা, তা তপনের হয় না।

‘সন্ধ্যাতারা’ পত্রিকায় তপনের লেখা প্রথম দিন’ গল্পটি প্রকাশিত হওয়ার পর তপন তার মাকে গল্পটি পড়ে শােনাতে যায়। সে দেখে সংশােধনের নামে ছােট মেসােমশাই লেখার আগাগােড়াই বদলে দিয়েছেন। ছেপে আসা গল্পে তার কৃতিত্ব এতটুকুও অবশিষ্ট নেই। লজ্জায়, অপমানে তপন ভেঙে পড়ে এবং তার মনে হয় ঐ দিনটি যেন তার জীবনের সবচেয়ে দুঃখের।


৪. কম-বেশি ১৫০ শব্দে নীচের প্রশ্নটির উত্তর নিজের ভাষায় লেখাে : ৫

‘জ্ঞানচক্ষু’ গল্প অনুসরণে তপনের জ্ঞানচক্ষু কীভাবে উন্মীলিত হয়েছিল তা আলােচনা করাে।

উত্তর : আশাপূর্ণা দেবীর “জ্ঞানচক্ষু” গল্পটিতে জ্ঞানচক্ষু বলতে একজন মানুষের অন্তদৃষ্টির জাগরণকে বােঝানাে হয়েছে। গল্পটিতে তপনের দুইবার জ্ঞানচক্ষু উন্মােচনের কথা বলা হয়েছে। প্রথমবার তা আপাত ক্ষনিকের জন্য হলেও পরবর্তীকালে যে জ্ঞানচক্ষু খুলেছিল তা যথেষ্ট ব্যঞ্জনাধর্মী।
তপনের ধারণা ছিল লেখকেরা আর পাঁচটা সাধারণ মানুষের মত নয়, তারা অন্যরকম, ধরা ছোঁয়ার বাইরে। কিন্তু নতুন মেসােমশাইকে দেখে তার জ্ঞানচক্ষু খুলে গেল অথাৎ লেখক যে আমাদের মতােই সাধারণ মানুষ তা তপন উপলব্ধি করতে পারল।

পরবর্তীকালে মেসাের সুবাদে তপনের লেখা প্রথমদিন’ গল্পটি ‘সন্ধ্যতারা পত্রিকায় ছাপা হয়। কিন্তু বাড়িতে সমবেত সকল আত্মীয়ের সামনে গল্পটি পাঠ করতে গেলে সে চমকে ওঠে। সংশােধনের নামে মেসােমশাই লেখার মৌলিকতা পুরােটাই নষ্ট করে দিয়েছেন। তপনের লেখার মৌলিকতা সেখানে খুঁজে পাওয়া ভার। নিজের লেখা পড়তে গিয়ে অন্যের লেখা পড়া ও ধন্য ধন্য শােনার মধ্যে দিয়ে যে লজ্জা, অপমান তা তার সত্যিকারের জ্ঞানের দৃষ্টিকে জাগ্রত করে। এভাবেই তপনের আত্মমর্যাদাবােধের জাগরণের মধ্য দিয়ে তপনের জ্ঞানচক্ষু উন্মীলিত হয়।


Model Activity Task Class 10 English January 2022


Replace the underlined words with suitable phrasal verbs from the given list. Change the form of verbs if necessary. Write the answers in the given space. One extra phrasal verb is given in the list : 2 × 2 = 4

i) The manager rejected the proposal.

Answer- The manager turn down the proposal.

b) She cannot tolerate bad habits.

Answer – She cannot put up with bad habits.

[List of Phrasal verbs: turn down, set out, put up with]

Activity 2

Join the following pairs of sentences: 1 × 3 = 3

a) Walk slowly. You will fall.

Answer – Walk slowly otherwise you will fall.

b) Salma won the first prize. I know it.

Answer – I know that Salma won the first prize.

c) He cannot come. His brother cannot come.

Answer – He and his brother cannot come.

Activity 3

Fill in the blanks with suitable prepositions: 1×3 = 3

a) The man sat __ the chair.

Answer – The man sat on the chair

b) The boy dived __ the river.

Answer – The boy dived into the river.

c) She is going __ school.

Answer – she is going to school.

Activity 4

Write a paragraph in about 100 words on the importance of reading newspaper. Use the following points : 10

Points: powerful medium – provides information – benefits of reading newspaper – demerits – conclusion

Reading the newspaper is one of the most beneficial habits. It helps us to get to know the world’s current affairs. We’re getting to know about the latest events from a reliable source. We also get to know about different politics, economics, the entertainment industry, sports, and much more. Also, newspapers help us in finding jobs. Most companies post advertisements for job vacancies in newspapers.


Model Activity Task Class 10 January Mathematics 2022


নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর লেখাে : 

1. ঠিক উত্তরটি বেছে নিয়ে লেখাে : 1 x 3 = 3 

(ক) দ্বিঘাত বহুপদী সংখ্যামালাটি হলাে— 

(a) 2 – 3x

(b) x2 + 3/x + 5

(c) x(2x + 4) + 1

(d) 2(2 – 3x) 

উত্তরঃ দ্বিঘাত বহুপদী সংখ্যামালাটি হলাে —  (c) x(2x + 4) + 1

(খ) x2 – 3x + 2 = 0 সমীকরণটির বীজ দুটি হলাে— 

(a) 0, 1

(b) 0, 2 

(c) 0, 0

(d) 1, 2 

উত্তরঃ x2 – 3x + 2 = 0 সমীকরণটির বীজ দুটি হলাে—  (d) 1, 2 

(গ) px2 + qx + T = 0 সমীকরণটি (p, q, r বাস্তব) দ্বিঘাত সমীকরণ হওয়ার শর্ত হলাে— 

(a) q ≠ 0

(b) r ≠ 0 

(c) p ≠ 0

(d) p যে কোনাে অখণ্ড সংখ্যা 

উত্তরঃ px2 + qx + T = 0 সমীকরণটি (p, q, r বাস্তব) দ্বিঘাত সমীকরণ হওয়ার শর্ত হলাে—   (c) p ≠ 0

2. সত্য/মিথ্যা লেখাে : 1 x 2 = 2 

(ক) a, b, c ধনাত্মক বাস্তব সংখ্যা এবং a > b ও c > b হলে, ax2 + bx + c = 0 দ্বিঘাত সমীকরণটির বীজদ্বয় বাস্তব হবে।

উত্তরঃ মিথ্যা

(খ) ax2 + bx + c = 0 সমীকরণে a = 0 হলে (b, c বাস্তব), সমীকরণটি একটি রৈখিক সমীকরণে পরিণত হবে। 

উত্তরঃ  সত্য

3. সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও : 2 x 3 = 6 

(ক) x2 + Px + 2 = 0 সমীকরণটির একটি বীজ 2 হলে, P-এর মান কত? 

Ans: যেহেতু, x2 + Px + 2 = 0 সমীকরণটির একটি বীজ 2

∴ x2 + Px + 2 = 0

বা, (2)2 + P×2 + 2 = 0

বা, 4 + 2P + 2 = 0

বা, 6 + 2P = 0

বা, 2P = -6

∴ P = -3

∴ নির্ণেয় P এর মান -3

(খ) x – 4x + 5 = 0 সমীকরণটির নিরূপক নির্ণয় করাে। 

Ans: x2 – 4x + 5 = 0 দ্বিঘাত সমীকরণটিকে ax2 + bx + c = 0 দ্বিঘাত সমীকরণের সঙ্গে তুলনা করে পাই,

a=1, b=-4, c=5

∴ নিরুপক = b2 – 4ac

= (-4)2 – 4×1×5

= 16 – 20

= -4

(গ) ax2 + bx + c = 0 (a, b, c বাস্তব, a ≠ 0) সমীকরণটির বীজদ্বয় (i) বাস্তব ও সমান এবং (ii) বাস্তব ও অসমান হওয়ার শর্তগুলি লেখাে।

Ans: ax2 + bx + c = 0 সমীকরণটির বীজদ্বয়

(i) বাস্তব ও সমান হবে যখন b2 – 4ac = 0 হয়।

(ii) বাস্তব ও অসমান হবে যখন b2 – 4ac > 0 হয়।

4. (ক) একচুলবিশিষ্ট দ্বিঘাত সমীকরণ গঠন করে সমাধান করাে—দুই অঙ্কবিশিষ্ট একটি সংখ্যার একক স্থানীয় অঙ্কটি দশক স্থানীয় অঙ্ক অপেক্ষা 6 বেশি এবং অঙ্কদ্বয়ের গুণফল সংখ্যাটির চেয়ে 12 কম। সংখ্যাটি নির্ণয় করাে। 

Ans: ধরি, দশক স্থানীয় অঙ্কটি = x

∴ একক স্থানীয় অঙ্কটি = (x+6)

∴ সংখ্যাটি = 10x + (x+6)

= 10x + x + 6

= 11x + 6

অঙ্কদ্বয়ের গুণফল = x × (x+6)

= x2 + 6x

প্রশ্নানুসারে, x2 + 6x = (11x+6) – 12

বা, x2 + 6x = 11x + 6 – 12

বা, x2 + 6x = 11x – 6

বা, x2 + 6x – 11x + 6 = 0

∴ x2 – 5x + 6 = 0

∴ নির্ণেয় একচল বিশিষ্ট দ্বিঘাত সমীকরণটি হলো x2 – 5x + 6 = 0

এখন x2 – 5x + 6 = 0

বা, x2 – (3+2)x + 6 = 0

বা, x2 – 3x – 2x + 6 = 0

বা, x(x-3) – 2(x-3) = 0

বা, (x-3) (x-2) = 0

হয়, x – 3 = 0

∴ x = 3

অথবা, x – 2 = 0

∴ x = 2

∴ x = 3 হলে, সংখ্যাটি

= 11x + 6

= 11×3 + 6

= 33 + 6

= 39

∴ x = 2 হলে, সংখ্যাটি

= 11x + 6

= 11×2 + 6

= 22 + 6

= 28

(খ) 5x2 + 2x – 3 = 0 দ্বিঘাত সমীকরণের বীজদুটি α ও β হলে, α2 + β2 -এর মান নির্ণয় করাে।

Ans: 5x2 + 2x – 3 = 0 দ্বিঘাত সমীকরণকে ax2 + bx + c = 0 দ্বিঘাত সমীকরণের সঙ্গে তুলনা করে পাই, a=5, b=2, c=-3

alpha + beta
alpha times beta equal to c fraq a
equal to sub 3fraq 5

প্রদত্ত রাশি = α2 + β2

 4plus 30 by 25
thirty by 25
1 multiple 9 by 5

∴ নির্ণেয় (α2 + β2) এর মান 

(গ) সমাধান করাে : 

\frac{x}{x+1}+ \frac{x+1}{x}=2\frac{1}{12},x\neq 0, -1

Ans: ধরি,  

x by x plus 1 equal to a
(x by x plus 1) + (x plus 1) by x
x + 1/a= 25/12
a square plus 1 by a equal 25 by 12

বা, 12a2 + 12 = 25a

বা, 12a2 – 25a + 12 = 0

বা, 12a2 – 16a – 9a + 12 = 0

বা, 4a(3a-4) – 3(3a-4) = 0

বা, (3a-4) (4a-3) = 0

হয়, 3a – 4 = 0

বা, 3a = 4

বা, 3 ×  = 4

বা,  = 4

বা, 4x + 4 = 3x

বা, 4x – 3x = -4

∴ x = -4

অথবা, 4a – 3 = 0

বা, 4a = 3

বা, 4 ×  = 3

বা,  = 3

বা, 4x = 3x + 3

বা, 4x – 3x = 3

∴ x = 3


Model Activity Task Class 10 Life Science January 2022 Part 1


১. প্রতিটি প্রশ্নের সঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে তার ক্রমিক সংখ্যাসহ বাক্যটি সম্পূর্ণ করে লেখো : ১×৩ = ৩

১.১ বৃত্তীয় নালিকায় জলের পুনঃশোষণ ঘটাতে সাহায্য করে যে হরমোন তা নির্বাচন করো –

(ক) ACTH
(খ) GH
(গ) TSH
(ঘ) ADH

উত্তরঃ বৃত্তীয় নালিকায় জলের পুনঃশোষণ ঘটাতে সাহায্য করে ADH হরমোন।

১.২ নীচের যে জোড়টি সঠিক নয় তা শনাক্ত করো –

(ক) ফোটোন্যাস্টিক চলন – সূর্যমুখী
(খ) থার্মোন্যাস্টিক চলন – টিউলিপ
(গ) সিসমোন্যাস্টিক চলন – পদ্ম
(ঘ) কেমোন্যাস্টিক চলন – সূর্যশিশির

উত্তরঃ (গ) সিসমোন্যাস্টিক চলন – পদ্ম এই জোড় টি সঠিক নয়।

১.৩ ইস্ট্রোজেন হরমোন ক্ষরণে সাহায্য করে যে হরমোন সেটি বেছে নাও

(ক) GH
(খ) FSH
(গ) ADH
(ঘ) ACTH

উত্তরঃ ইস্ট্রোজেন হরমোন ক্ষরণে সাহায্য করে FSH হরমোন


২. নীচের বাক্যগুলো সত্য অথবা মিথ্যা নিরূপণ করো : ১×৪ = ৪

২.১ গ্রোথ হরমোনের অতিক্ষরণের ফলে বামনত্ব দেখা যায়।

উত্তরঃ মিথ্যা

২.২ ফোটোট্যাকটিক চলনে ক্ল্যামাইডোমোনাসের দেহের সামগ্রিক স্থান পরিবর্তন ঘটে।

উত্তরঃ সত্য

২.৩ আগাছানাশক হিসেবে কৃত্রিম অক্সিনের ভূমিকা আছে।

উত্তরঃ সত্য

২.৪ হরমোন ক্রিয়ার পর ধ্বংস হয় না।

উত্তরঃ মিথ্যা


৩. দুই-তিন বাক্যে উত্তর দাও : ২ × 8 = ৮

৩.১ ‘উদ্ভিদের কাণ্ডে আলােক অনুকূলবর্তী চলন দেখা যায়’ – একটি পরীক্ষার সাহায্যে বক্তব্যটি ব্যাখ্যা করাে। 

উত্তরঃ  টবসহ একটি গাছকে অন্ধকার ঘরে জানলার সামনে রেখে জানালার একটি পাল্লা খুলে রাখলে কয়েকদিন পর গাছের কান্ড কে জানলার দিকে বেঁকে বৃদ্ধি পেতে দেখা যাবে। এর থেকে প্রমাণিত হয় উদ্ভিদের কান্ডের আলােক অনুকূলবর্তী।

৩.২ নিম্নলিখিত বৈশিষ্ট্যের ওপর ভিত্তি করে ট্রপিক ও ন্যাস্টিক চলনের পার্থক্য নিরুপণ করো:

  • উদ্দীপকের প্রভাব
  • অক্সিন হরমােনের প্রভাব 
বিষয়ট্রপিক চলনন্যাস্টিক চলন
উদ্দীপকের প্রভাবএই প্রকার চলন উদ্দীপকের উৎসের গতিপথ অনুসারে নিয়ন্ত্রিত হয়।এই প্রকার চলন উদ্দীপকের তীব্রতার উপর নির্ভর করে কিন্তু উদ্দীপকের গতিপথের উপর নির্ভর করে না।
অক্সিন হরমোনের প্রভাবট্রপিক চলন নিয়ন্ত্রণে অক্সিন হরমোন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।কিন্তু ন্যাস্টিক চলন নিয়ন্ত্রণে অক্সিন হরমোনের কোনো ভূমিকা নেই।

৩.৩ মানবদেহে টেস্টোস্টেরন হরমােনের ভূমিকা বিশ্লেষণ করাে।

উত্তরঃ  মানব দেহে টেস্টোস্টেরন হমানের ভূমিকা: 

(ক) পুরুষের যৌনাঙ্গের পরিবর্তন: টেস্টোস্টেরনের প্রভাবে পুরুষের প্রধান যৌনাঙ্গের এবং আনুষঙ্গিক যৌনাঙ্গের বৃদ্ধি ঘটে। 

(খ) মৌল বিপাকীয় হার: টেস্টোস্টেরন দেহে মৌল বিপাকীয় হার এবং প্রােটিন সংশ্লেষণ বৃদ্ধি করে।

৩.৪ জিব্বেরেলিন হরমোনের উৎস উল্লেখ করো।

উত্তরঃ  জিব্বরেলিন হরমোন সাধারণত উদ্ভিদের অঙ্কুরিত বীজ পরিনত ও পরিপক্ক বীজে বেশি পরিমাণে পাওয়া যায় এছাড়াও অঙ্কুরিত চারাগাছ, মুকুল, বীজপত্রের কোশ, পাতার বর্ধিষ্ণু অঞ্চলে এই হরমোন পাওয়া যায়।


৪. নীচের প্রশ্নটির উত্তর দাও :

৪.১ উদাহরণের সাহায্যে হরমোনের ফিডব্যাক নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতিটি আলোচনা করো। “ইনসুলিন আর গ্লুকাগনের ক্রিয়া পরস্পরের বিপরীতধর্মী” – বক্তব্যটির যথার্থতা ব্যাখ্যা করো। ৩+২=৫

উত্তরঃ যখন কোনো একটি অন্তঃক্ষরা গ্রন্থির ক্ষরণ পদার্থ অপর কোনো অন্তঃক্ষরা গ্রন্থিকে হরমোন ক্ষরণে উদ্দীপিত করে, তখন তাকে ফিডব্যাক নিয়ন্ত্রণ বলা হয় ।

এই ফিডব্যাক নিয়ন্ত্রণ দুই প্রকার যথা :

(ক) পজিটিভ বা ধনাত্মক ফিডব্যাক নিয়ন্ত্রণ : উদাহরণ – রক্তে ইস্ট্রোজেন এর মাত্রা স্বাভাবিকের থেকে বৃদ্ধি পেলে LH -এর ক্ষরণ বৃদ্ধি পায় ।

(খ) নেগেটিভ বা ঋণাত্মক ফিডব্যাক নিয়ন্ত্রণ : উদাহরণ – রক্তে ইস্ট্রোজেন এর মাত্রা স্বাভাবিকের থেকে বৃদ্ধি পেলে FSH -এর ক্ষরণ হ্রাস পায়।

ইনসুলিন আর গ্লুকাগনের ক্রিয়া পরস্পর বিপরীতধর্মী কারণ : ইনসুলিন রক্তে শর্করার পরিমাণ হ্রাস করে। অপরপক্ষে গ্লুকাগন রক্তে শর্করার পরিমাণ বাড়ায়। এই কারনে ইনসুলিন আর গ্লুকাগনকে বিপরীতধর্মী হরমোন বলা হয়।


Model Activity Task Class 10 Physical Science January 2022 Part 1


১. ঠিক উত্তর নির্বাচন করো :  ১ x৩= ৩

১.১  নীচের যেটি গ্রিনহাউস গ্যাস তা হলো —

(ক)  N2
(খ) N2O
(গ) O₂
(ঘ) H2

উত্তরঃ N2O হল একটি গ্রিনহাউস।

১.২  যে গ্যাসটি গ্রিনহাউস গ্যাস এবং যার জলীয় দ্রবণ আম্লিক সেটি হলো -—

(ক) CH4
(খ) N₂O
(গ) CO2
(ঘ) CFC

উত্তরঃ CO2 গ্যাসটি গ্রিনহাউস গ্যাস এবং যার জলীয় দ্রবণ আম্লিক।

১.৩ যে গ্যাসটি ওজোন স্তরের ক্ষতি করে না সেটি হলো —

(ক) N2

(খ) N2O

(গ) NO

(ঘ) NO2

উত্তরঃ N2 গ্যাসটি ওজোন স্তরের ক্ষতি করে না।


২. নীচের বাক্যগুলি সত্য অথবা মিথ্যা তা নিরুপণ করো :   ১x৫ = ৫

২.১ বায়ুমণ্ডলে নিহাউস গ্যাসের একটি স্তর আছে বলেই গ্রিনহাউস এফেক্ট ঘটছে।

উত্তরঃ  মিথ্যা

২.২ ফসিল ফুয়েল পোড়াবার ফলে সৃষ্ট CO2 গ্লোবাল ওয়ার্মিংয়ের প্রধান কারণ।

উত্তরঃ সত্য

২.৩ পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রধান উপাদান গ্যাস দুটি প্রিনহাউস গ্যাস নয়।

উত্তরঃ সত্য

২.৪ উত্তপ্ত মাটি যে ইনফ্রারেড রশ্মি ছেড়ে দেয় তার তরঙ্গদৈর্ঘ্য সূর্য থেকে আগত ইনফ্রারেডের তরঙ্গদৈর্ঘ্যের চেয়ে কম।

উত্তরঃ মিথ্যা

২.৫ কম শক্তির অতিবেগুনি রশ্মি শোষণে ওজোনের অণু অক্সিজেন অণু ও অক্সিজেন পরমাণুতে ভেঙে যায়।

উত্তরঃ মিথ্যা


৩. সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও: ২x৩ = ৬

৩.১ গ্লোবাল ওয়ার্মিংয়ের দুটি ক্ষতিকারক প্রভাব উল্লেখ করো।

উত্তরঃ  গ্লোবাল ওয়ার্মিংয়ের দুটি ক্ষতিকারক প্রভাব:  

(ক) আগামি এক শতকে পৃথিবীর উষ্ণতা 20C– 40C এর মতো বৃদ্ধি পাবে ও প্রাকৃতিক বিপর্যয় ডেকে আনবে l 

(খ) উষ্ণতা বৃদ্ধির ফলে মেরু অঞ্চলের বরফের স্তুপ গলে যাবে এবং জলস্ফীতি ঘটবে l সমুদ্রপৃষ্ঠের জলস্তর বৃদ্ধি পেয়ে মহাপ্লাবন দেখা দেবে l

৩.২. ‘গ্রিন হাউস এফেক্ট না থাকলে পৃথিবীতে প্রাণসৃষ্টির উপযুক্ত উষ্ণতা সৃষ্টি হত না’ – যুক্তিসহ সমর্থন করো।

উত্তরঃ  গ্রিনহাউস এফেক্ট-এর উপযোগিতা : যদি ভূসংলগ্ন বায়ুমণ্ডলে গ্রিনহাউস গ্যাসগুলি না থাকত তবে ভূপৃষ্ঠ কর্তৃক বিকিরিত তাপ মহাশূন্যে ফিরে যেত। সেক্ষেত্রে ভূসংলগ্ন বায়ুমণ্ডলের উষ্ণতা অনেক বেশি হয়ে যেত। এই উষ্ণতায় জীবকূলের বেঁচে থাকা অসম্ভব হত এবং পৃথিবী থেকে জীবের অস্তিত্ব লোপ পেত।

৩.৩ ওজোনস্তরের ক্ষতি হলে জীবজগতের যেসব ক্ষতি হবে, তার দুটি উল্লেখ করো।

উত্তরঃ   ওজোন স্তর ধ্বংসের ক্ষতিকর প্রভাব : 

(ক) মানুষের ওপর প্রভাব : চামড়ার ক্যান্সার, চোখে ছানি পড়া ইত্যাদি রোগ হতে পারে l

(খ) উদ্ভিদের ওপর প্রভাব : সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়া ব্যাহত হবে ফলে উদ্ভিদ জগতের ক্ষতি হবে।


৪. নীচের প্রশ্ন দুটির উত্তর দাও : ৩x২ = ৬

৪.১   কাচের গ্রিনহাউসের মধ্যের বাতাস বাইরের বাতাদের তুলনায় অপেক্ষাকৃত গরম থাকে যে যে কারণে সেগুলো ব্যাখ্যা করো।

উত্তরঃ সূর্য থেকে আসা দৃশ্যমান আলোকরশ্মির অপেক্ষাকৃত ক্ষুদ্র তরঙ্গদৈর্ঘ্য বিশিষ্ট অবলোহিত রশ্মি সাপেক্ষে কাচ তাপস্বচ্ছ বস্তু হিসেবে আচরণ করায় সেগুলি সহজেই কাচের দেয়াল ও ছাদ ভেদ করে ঘরের মধ্যে প্রবেশ করে এবং ঘরের মধ্যেকার মাটি ও উদ্ভিদকে উত্তপ্ত করে। ঘরের ভিতরে থাকা মাটি ও উদ্ভিদ যে তাপ নিঃসরণ করে সেগুলি বৃহৎ তরঙ্গদৈর্ঘ্য সম্পন্ন হয়। এই বিকিরণ সাপেক্ষে কাচ তাপ অস্বচ্ছ হওয়ায় সেগুলি কাচ ভেদ করে বাইরে আসতে পারে না। কাচ এই রশ্মির কিছু অংশ শোষণ করে উত্তপ্ত হয় এবং বাকিটা ঘরের ভিতরকার মাটিতে প্রতিফলিত করে। ফলে, কাচের ঘরের ভিতরের উষ্ণতা বাইরের তুলনায় বেশি থাকে।

৪.২   ওজোনস্তরের পক্ষে ক্ষতিকারক এমন একটি গ্যাসের নাম লেখো। ওজোনস্তরে ‘ছিদ্র’ হওয়ার প্রকৃত অর্থ কী তা ব্যাখ্যা করো।

উত্তরঃ ওজোনস্তরের পক্ষে ক্ষতিকারক এমন একটি গ্যাস হলো – ক্লোরোফ্লুরোকার্বন (CFC) l

বায়ুমণ্ডলের স্ট্র্যাটোস্ফিয়ারে স্তরে ওজোন গ্যাস তৈরি ও ওজোন গ্যাসের বিয়োজন এই দুই বিপরীত প্রক্রিয়ার মধ্যে প্রাকৃতিক ভারসাম্য বজায় থাকে, কিন্তু মনুষ্যসৃষ্ট কিছু ক্ষতিকারক রাসায়নিক পদার্থ (যেমন CFC, NO ইত্যাদি) ব্যবহারের ফলে স্ট্রাটোস্ফিয়ার অঞ্চলে ওজোন গ্যাসের উৎপাদন অপেক্ষা বিয়োজনের হার বেড়ে যাওয়ায় স্ট্র্যাটোস্ফিয়ারের অন্তর্গত ওজোন স্তরটি ক্রমশ পাতলা হয়ে যাচ্ছে। ওজোন স্তরের এই পাতলা হওয়ার ঘটনাই হলো ওজোনস্তর ‘ছিদ্র’ হওয়ার প্রকৃত অর্থ।


Model Activity Task Class 10 History January 2022 Part 1


১. শূন্যস্থান পূরণ করো : ১ x 8=8

(ক) ‘সোমপ্রকাশ’ ছিল একটি __________________পত্রিকা।

উত্তরঃ  ‘সোমপ্রকাশ’ ছিল একটি সাপ্তাহিক পত্রিকা।

(খ) ‘বেঙ্গল গেজেট’ নামে প্রথম সাপ্তাহিক পত্রিকা প্রকাশ করেন ____________________।

উত্তরঃ ‘বেঙ্গল গেজেট’ নামে প্রথম সাপ্তাহিক পত্রিকা প্রকাশ করেন জেমস অগাস্টাস হিকি

(গ) মোহনবাগান আই.এফ.এ. শিল্ড জিতেছিল ________________ খ্রিস্টাব্দে।

উত্তরঃ  মোহনবাগান আই.এফ.এ. শিল্ড জিতেছিল ১৯১১ খ্রিষ্টাব্দে।

(ঘ) জীবনের ঝরাপাতা হল একটি __________________।

উত্তরঃ জীবনের ঝরাপাতা হল একটি আত্মজীবনী


২. ঠিক-ভুল নির্ণয় করো :  ১ x 8=8

(ক) ভারতের ঔপনিবেশিক অরণ্য আইন প্রধানত সাংস্কৃতিক ইতিহাসচর্চার বিষয়।

উত্তরঃ ভুল

(খ) সরকারি প্রতিবেদন গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক তথ্য সরবরাহ করে।

উত্তরঃ ঠিক

(গ) সরকারি গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র মহাফেজখানায় সংরক্ষিত থাকে।

উত্তরঃ ঠিক

(ঘ) সামাজিক ইতিহাস সামাজিক কাঠামো ও বিভিন্ন শ্রেণির মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্কের উপর জোর দেয়।

উত্তরঃ ঠিক


৩. স্তম্ভ মেলাও : ১ x 8=8

ক স্তম্ভখ স্তম্ভ
সোমপ্রকাশরবীন্দ্রনাথ ঠাকুর
বঙ্গদর্শনবিপিনচন্দ্র পাল
সত্তর বৎসরবঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়
জীবনস্মৃতিদ্বারকানাথ বিদ্যাভূষণ

উত্তরঃ

ক স্তম্ভখ স্তম্ভ
সোমপ্রকাশদ্বারকানাথ বিদ্যাভূষণ
বঙ্গদর্শনবঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়
সত্তর বৎসরবিপিনচন্দ্র পাল
জীবনস্মৃতিরবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

৪. দুটি বা তিনটি বাক্যে উত্তর দাও : ২ x 8=৮

(ক) সংবাদপত্র ও সাময়িকপত্রের মধ্যে পার্থক্য কী?

উত্তর- সংবাদপত্র ও সাময়িক পত্রের মধ্যে পার্থক্য গুলি হলো –

ক) সংবাদপত্র গুলি আকারে সাময়িকপত্রের তুলনায় অনেকটাই বড়ো হয়। কিন্তু সাময়িকপত্র গুলি আকারে তুলনামূলক ছোটো হয়।

খ) সংবাদপত্র প্রকাশের কোনো নির্দিষ্ট সময়কাল থাকে না। কিন্তু, সাময়িকপত্র প্রকাশের একটি নির্দিষ্ট সময়কাল থাকে।

গ) সংবাদপত্র গুলি গবেষণামূলক রচনা প্রকাশের ক্ষেত্রে বিশেষ গুরুত্ব প্রদান করে না। কিন্তু সাময়িকপত্র গুলি গবেষণামূলক রচনা প্রকাশের ক্ষেত্রে যথেষ্ট গুরুত্ব প্রদান করে।

ঘ) সংবাদপত্রগুলি দৈনিক ভিত্তিতে এবং পত্রিকাগুলি বেশিরভাগই সাপ্তাহিক বা মাসিক ভিত্তিতে প্রকাশিত হত।

(খ) স্থানীয় ইতিহাস চর্চার গুরুত্ব কী?

উত্তর- আধুনিক ইতিহাসের উপাদান হিসেবে স্থানীয় ইতিহাসের গুরুত্ব অপরিসীম।

গুরুত্ব : ক) ধারাবাহিকতা : স্থানীয় ইতিহাসে স্থানীয় ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির অতীত থেকে বর্তমান পর্যন্ত চলচিত্র তুলে ধরা হয়।

খ) উপাদান : জাতীয় স্তরে ইতিহাস রচনার সময়ে অনেক ক্ষেত্রে স্থানীয় ইতিহাসকে উপাদান হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

গ) সামাজিক ও রাজনৈতিক অবস্থান জানতে সাহায্য করে : স্থানীয় ইতিহাস কোনো অঞ্চলের রাজনৈতিক উত্থানপতন ও জনগোষ্ঠী সম্পর্কে জানতে সাহায্য করে।

ঘ) অতীত থেকে বর্তমান : স্থানীয় ইতিহাস, স্থানীয় ঐতিহ্য, সংস্কৃতির অতীত থেকে বর্তমান পর্যন্ত চালচিত্র তুলে ধরে।

(গ) ইন্দিরাকে চিঠি লেখার উদ্দেশ্য কী ছিল নেহরুর?

উত্তর- ইন্দিরাকে চিঠি লেখার নেহরুর উদ্দেশ্য গুলি হল

ক) তিনি চিঠি গুলির মাধ্যমে ইন্দিরাকে ইতিহাসের ধারাবাহিক ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন।

খ) তিনি ইন্দিরার মধ্যে ইতিহাসবোধ গড়ে তোলার জন্য আগুনের আবিষ্কার, ভাষা, লিপি, শিল্প, বাবস্যাবাণিজ্য, সমুদ্রযাত্রা প্রভৃতি বিষয়ে ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন।

গ) ভারতের ইতিহাস বিষয়ে আর্যদের আগমন, রামায়ণ ও মহাভারতের ঘটনাসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন।

(ঘ) ফটোগ্রাফ কীভাবে আধুনিক ভারতের ইতিহাসচর্চার উপাদান হিসেবে ব্যবহৃত হয়?

উত্তর- আধুনিক ইতিহাসচর্চার বিভিন্ন উপাদানের মধ্যে ফটোগ্রাফ একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। ফোটোগ্রাফির মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের ছবিকে ক্যামেরাবন্দি করা যায়। এগুলি কোন গুরুত্বপূর্ন ঘটনা, কোন মহান ব্যক্তি, কোন হত্যাকাণ্ড বা অন্য কিছু হতে পারে। যা ফটোগ্রাফিতে হয়ে ওঠে প্রামান্য বিষয়।

ব্যবহার :

ক) ফটোগ্রাফি ইতিহাসচর্চার নতুন উপাদান সরবরাহ করতে পারে।

খ) প্রচলিত তথ্য বা ঘটনার সত্যতা ফোটোগ্রাফির দ্বারা যাচাই করা যেতে পারে।

গ) ফটোগ্রাফ থেকে নির্দিষ্ট কোনো ঘটনার বিবরণ ও পুঙ্খানুপুঙ্খ তথ্য পাওয়া যায় বলে ঐতিহাসিক ঘটনার প্রামাণ্য ভিত্তি আরও দৃঢ় হয়।

ঘ) ফটোগ্রাফি থেকে অতীতের কোনো বিষয়ের আলোকচিত্র ইতিহাসের উপাদান হিসেবে তথ্য যোগায়।


Model Activity Task Class 10 Geography January 2022


১. বিকল্পগুলি থেকে ঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে লেখাে :     ১x৩=৩

১.১ নীচের যে প্রক্রিয়াটি বহির্জাত প্রক্রিয়া নয় সেটি হলাে— 

(ক) আবহবিকার
(খ) নগ্নীভবন 
(গ) অগ্ন্যুদগম
(ঘ) পুঞ্ছিত ক্ষয় 

উত্তর: অগ্ন্যুদগম প্রক্রিয়াটি বহির্জাত প্রক্রিয়া নয়

১.২ যে প্রক্রিয়ায় নদীবাহিত প্রস্তরখণ্ড পরস্পরের সংঘর্ষের ফলে ভেঙে গিয়ে নুড়ি, বালি প্রভৃতিতে পরিণত হয়; তাকে বলে— 

(ক) অবঘর্ষ ক্ষয়
(খ) দ্রবণ ক্ষয় 
(গ) জলপ্রবাহ ক্ষয়
(ঘ) ঘর্ষণ ক্ষয় 

উত্তর: ঘর্ষণ ক্ষয় প্রক্রিয়ায় নদীবাহিত প্রস্তরখণ্ড পরস্পরের সংঘর্ষের ফলে ভেঙে গিয়ে নুড়ি, বালি প্রভৃতিতে পরিণত হয়

১.৩ ঠিক জোড়টি নির্বাচন করাে —

(ক) নদীর অধিক নিম্নক্ষয়—প্লাবনভূমি 
(খ) নদীর অধিক পার্শ্বক্ষয়—গিরিখাত 
(গ) নদীর গতিপথে কঠিন শিলার নীচে কোমল শিলার অবস্থান—জলপ্রপাত
(ঘ) নদীর উচ্চগতিতে অধিক ক্ষয়কাজ—বদ্বীপ।

উত্তর: (গ) নদীর গতিপথে কঠিন শিলার নীচে কোমল শিলার অবস্থান—জলপ্রপাত


২.১ উপযুক্ত শব্দ বসিয়ে শূন্যস্থান পূরণ করাে :    ১x২=২ 

২.১.১ মরু অঞ্চলে বায়ু ও জলধারার মিলিত কার্যের ফলে পেডিমেন্টের সম্মুখে গড়ে ওঠা সঞ্জয়জাত ভূমিরূপ হলাে ______________ l

উত্তর: মরু অঞ্চলে বায়ু ও জলধারার মিলিত কার্যের ফলে পেডিমেন্টের সম্মুখে গড়ে ওঠা সঞ্জয়জাত ভূমিরূপ হলাে বাজাদা l

২.১.২ নদীর ক্ষয়কার্যের ফলে নদীখাতে সৃষ্টগর্ত হলাে ______________ l

উত্তর: নদীর ক্ষয়কার্যের ফলে নদীখাতে সৃষ্টগর্ত হলাে মন্থকূপ l


২.২ ‘ক’ স্তম্ভের সঙ্গে ‘খ’ স্তম্ভ মেলাও :    ১x৩=৩

‘ক’ স্তম্ভ‘খ’ স্তম্ভ
২.২.১. নদীর ক্ষয়, বহন ও সঞ্জয় কাজের ফলে সৃষ্ট ভূমিরূপ ৩. অশ্বক্ষুরাকৃতি হ্রদ
২.২.২. হিমবাহের ক্ষয়কাজের ফলে সৃষ্ট ভূমিরূপ১. এরিটি
২.২.৩. বায়ুর অপসারণ সৃষ্টগর্ত২. ব্লো-আউট 

৩. নীচের প্রশ্নগুলির সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও :     ২x২=৪ 

৩.১ মরুদ্যান কীভাবে সৃষ্টি হয়? 

উত্তর: মরু অঞ্চলে বাযুর অপসারণ প্রক্রিয়ায় দীর্ঘদিন ধরে কোন একটি অঞ্চলের বালিরাশি অপসারিত হতে থাকলে অঞ্চলটি ক্রমশ অবনমিত হয়ে পড়তে পড়তে একসময় ভৌমজলস্তর উন্মুক্ত হয়ে পড়ে। ফলে ওই স্থানে জলাশয় সৃষ্টি হয় এবং ক্রমশ উদ্ভিদ জন্মে অঞ্চলটিতে মনােরম পরিবেশ তৈরী হয়। শুষ্ক মরু অঞ্চলের মধ্যে এরকম ভাবে মরুদ্যান সৃষ্টি হয়। উদাঃ সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াধ একটি আদর্শ মরুদ্দ্যান।

৩.২ ‘উঁচু পার্বত্য উপত্যকায় ক্রেভাসের উপস্থিতি পর্বতারােহীদের সমস্যার অন্যতম কারণ।’—সংক্ষেপে এর ভৌগােলিক কারণ ব্যাখ্যা করাে। 

উত্তর: পর্বত ও হিমবাহের গাযে যে অসংখ্য ক্রেভাস থাকে সেগুলি পর্বতারােহীদের অভিযানের পথে বাধার সৃষ্টি করে। অনেক সময় এই ফাটলগুলিতে পর্বতারােহীরা পড়ে গিযেও প্রাণ হারান অথবা মারাত্মক চোট পান।


৪. নীচের প্রশ্নটির উত্তর দাও :     ৩x১=৩ 

মরু সম্প্রসারণ রােধের তিনটি উপায় উল্লেখ করাে। 

উত্তর: মরু অঞ্চলের সম্প্রসারণ রােধের জন্য বেশ কিছু ব্যবস্থা গ্রহণ করা যায়। সেগুলি হল —

i)বৃক্ষরােপণ : মরু সম্প্রসারণ রােধের জন্য নির্বিচারে বৃক্ষচ্ছেদনের পরিমাণ হ্রাস করতে হবে এবং মরুভূমির প্রান্তে খরা সহনশীল বৃক্ষ ও লতাগুল্ম রােপনের দ্বারা গ্রিণ ওয়াল তৈরি করে চলনশীল বালিয়াডিগুলিকে স্থিতিশীল করতে হবে।

ii)তৃণম্ভর সৃষ্টি : মরুভূমির সম্প্রসারণের জন্য মরু অঞ্চলের অগভীর বালিস্তরে খরা প্রতিরােধী ঘাস লাগিয়ে কৃত্রি তৃণস্তর সৃষ্টি করা যেতে পারে। কারণ এই তৃণস্তর মরু অঞ্চলের শিখিল বালিকে ঢেকে দেয় বলে ওই বালির এক স্থান থেকে অন্য স্থানে উড়ে যাওয়ার সম্ভবনা হ্রাস পায়।

iii) পশুচারণ নিয়ন্ত্রণ : মরুভূমির প্রান্তে অনিয়ন্ত্রিত ভাবে পশুচারণ করলে তাদের পায়ের খুরের আঘাতে মৃত্তিকার উপরিভাগ থেকে তৃণস্তুর অপসারিত হয়ে যায়। ফলে মরুভূমির সম্প্রসারণ ঘটে। তাই মরু সম্প্রসারণ রােধের জন্য পশুচারণের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।


৫. নীচের প্রশ্নটির উত্তর দাও :     ৫x১=৫ 

  ঝুলন্ত উপত্যকা :  

        অনেক সময় প্রধান হিমবাহের দুপাশথেকে ছোট ছোট হিমবাহ বা উপহিমবাহ এসে প্রধান হিমবাহে মিলিত হয়। প্রধান হিমবাহের ক্ষয়কার্য বেশি হয় বলে তার দ্বারা সৃষ্ট উপত্যকা উপহিমবাহ সৃষ্ট উপত্যকার তুলনায় বেশি গভীর হয়। ফলের প্রধান হিমবাহের উপত্যকার সঙ্গে উপহিমবাহ সৃষ্ট ওইসব অগভীর উপত্যকার উচ্চতার পার্থক্য হয়। এইজন্য উপগ্হিমবাহ যেখানে এসে প্রধান হিমবাহে মেশে, সেই মিলনস্থল উপহিমবাহের উপত্যকা প্রধান হিমবাহ উপত্যকার ওপর ঝুলে থেকে ঝুলন্ত উপত্যকা সৃষ্টি করে। 

রসে মতানে :  

হিমবাহের প্রবাহ পথে ঢিবির মত আকৃতির শিলাখণ্ড থাকলে ওই শিলাখন্ডটির যেদিক থেকে হিমবাহ আসে সেই দিকে অবঘর্ষ প্রক্রিয়ায় শিলাখণ্ড মসৃণ এবং বিপরীত দিকে উৎপাটন প্রক্রিয়ায় এবড়োখেবড়ো বা অমসৃণ হয়। এই ধরনের ঢিবির নাম রসে মতানে । 

Table of Contents

Leave a Comment

Your email address will not be published.